'২০ বছর ধরে খেলে আসছি, আমি সব বুঝি', উইম্বলডনে দর্শকদের কটুক্তির প্রতিবাদ জোকারের

কয়েক বছর আগের কথা। প্যারিস মাস্টার্সের ফাইনালে সকলকে অবাক করেই নোভাক জকোভিচকে হারিয়ে দিয়ে ছিলেন যুব টেনিস খেলোয়াড় হোলগার রুন। এরপর থেকেই ডেনমার্কের এই টেনিস তারকা চলে আসেন লাইমলাইটে। উইম্বলডন হোক বা অন্য প্রতিযোগিতা, এরপরই ডেনমার্কের এই বাচ্চা ছেলের বিরুদ্ধে নামার আগেও যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করতে দেখা যায় বিশ্বের সবথেকে বেশি গ্র্যান্ডস্লাম জেতা পুরুষ টেনিস খেলোয়াড় নোভাক জকোভিচকে।  ২০২২ সালে ৬ নভেম্বরের সেই স্মৃতি এখনও টাটকা জোকারের মনে। এরই মধ্যে উইম্বলডনে রাউন্ড অফ সিক্সটিনের ম্যাচে সেই ড্যানিশ টেনিস খেলোয়াড়ের মুখোমুখি হয়েছিলেন সার্বিয়ান তারকা। ম্যাচ সহজে জিতলেও ম্যাচের পর কিন্তু বেজায় বিতর্ক বাড়ালেন ২৪টি গ্র্যান্ডস্লামের মালিক।

আরও পড়ুন-‘ওর মতো বোলার যুগে একটা আসে’!বিরাটের মন্তব্যে শুরু স্লোগান, ভিডিয়ো শেয়ার বুমরাহর

শেষ ষোলোর ম্যাচে রুনের বিরুদ্ধে সহজ জয়ই পেলেন সার্বিয়ান তারকা। ম্যাচের ফল ৬-৩, ৬-৪, ৬-১, যা দেখে সহজেই অনুমেয় একেবারেই প্রতিপক্ষকে দাঁড়াতে দেননি তিনি। যদিও ম্যাচে দর্শকদের একাংশ সমর্থন করছিলেন ড্যানিশ টেনিস তারকাকে। তাঁদের সমর্থনের মধ্যে  ষড়যন্ত্রের গন্ধ পেলেন জকোভিচ। বারবার রুন রুন বলে দর্শকদের একাংশ এমনভাবেই স্লোগান দিলেন যা শুনে মনে হতে পারে কেউ হয়ত জোকারকে বু… করছিলেন, অর্থাৎ বুইং বা কটাক্ষ। সেই নিয়েই উইম্বলডনের ম্যাচ শেষে দর্শকদের একহাত নিলেন সার্বিয়ান টেনিস তারকা। 

আরও পড়ুন-কবে চুরমা খাওয়াবেন প্রধানমন্ত্রীকে, জানিয়ে দিলেন নীরজের মা! এবার স্পেশাল ট্রিট…

নিজের ১৫তম উইম্বলডন কোয়ার্টার ফাইনালে প্রবেশের পর সার্বিয়ান তারকা বললেন, ‘আমি জানি কোনটা সমর্থন করা আর কোনটা বু করা। ওরা রুনকে সমর্থন করছিল, কারণ ওর নাম উচ্চারণের মাধ্যমে ওরা আমায় বু করতে পারবে। আমি কিন্তু এইসব বিষয়গুলো যথেষ্ট ভালো বুঝি।  আমি ২০ বছর ধরে কোর্টে খেলে আসছি, আমায় বিশ্বাস করতে পার, আমি সব কিছুই বুঝতে পারি, কীভাবে বিষয়গুলো হয় সেটাও জানি, তবে ঠিক আছে। আমি সেই সমস্ত দর্শকদের দিকেই মনোযোগ করেছি, যারা টাকা দিয়ে এই খেলা দেখতে এবং উপভোগ করতে এসেছে। আমি এর থেকেও আরও অনেক খারাপ পরিস্থিতিতে খেলেছি, তাই এরা কেউ কিছু করেই আমায় ছুঁতে পারবে না’।

আরও পড়ুন-আইপিএলের সময় টানা সমালোচনা! বিশ্বকাপ জয়ের পর হার্দিককে নিয়ে নীরবতা ভাঙলেন পাঠান

নোভাক জকোভিচের এই মন্তব্য কিন্তু সরাসরি অল ইংল্যান্ডের গ্রাস কোর্টের দর্শকদের একাংশের দিকে কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেওয়া বলা যায়। সার্বিয়ান তারকা নিশ্চই চাইবেন ঐতিহাসিক উইম্বলডন জিতেই নিজের কেরিয়ারের ২৫তম গ্রান্ডস্লাম জিতে পুরুষ মহিলা নির্বিশেষে সকলের ধরা ছোঁয়ার বাইরে চলে যেতে। কোয়ার্টার তাঁর প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার অ্যালেক্স ডি মিনার।

2024-07-09T03:28:14Z dg43tfdfdgfd